আব্দুল্লাহ আল ফারুক, সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম):

ফেইসবুকে অপপ্রচারের অভিযোগে বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সেকান্দার মাহমুদের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছেন বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) সকালে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

সীতাকুন্ড মডেল থানার ওসি তদন্ত সুমন বণিক জানান, এঘটনায় যুবলীগ নেতা সেকান্দর মাহমুদের বিরুদ্ধে আওয়ামীগ নেতা মোঃ শাহজাহান, তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা নং ৪০ দায়ে করেছেন।, মামলার পর থেকে আসামি পলাতক রয়েছে। আমরা তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শওকত আলী জাহাঙ্গীর ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহানের বিরুদ্ধে সেকান্দর মাহমুদ নামক একটি ফেইসবুক আইডি থেকে লেখা হয় বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান আপনার কাছে আমার ছোট জিজ্ঞাসা? আপনি বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক? নাকি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, দুর্নীতিবাজ, সাধারণ মানুষের জায়গা-জমি, রাস্তাঘাট, খালবিল, লোটে খাওয়া বিএনপি-জামায়াতের দালাল, স্বজনপ্রীতিবাজ শওকত আলী জাহাঙ্গীরের পার্সোনাল সেক্রেটারি? বাঁশবাড়িয়া আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা জানতে চাই?-এভাবে আরো নানান কথা লেখা হয়। এতে আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ শাহজাহান ও চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীরের মানহানি হওয়ায় আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ শাহজাহান বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেন বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতির সেকান্দর মাহমুদের বিরুদ্ধে।

মামলার বাদী বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান জানান, সেকান্দর তার নিজের ফেসবুক আইডি থেকে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ও আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বানোয়াট ও মানহানিকর তথ্য ফেসবুকে প্রচার করায় তার বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছি।

এ বিষয়ে বাশবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ রাজু বলেন, সেকান্দর মাহমুদ বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং ৯৬ থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত সামনে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন তাই গ্রুপিংয়ের কারণে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে বলে আমি মনে করি।

বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি সেকান্দর মাহমুদ জানান ,চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর এবং বাশবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান, আমার নেতা হয়। আমি ফেসবুকে তারা যে দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা মেরে খাচ্ছে যা দলের বদনামী হচ্ছে, সতর্ক হওয়ার জন্য আমার ফেসবুকে পোস্ট টা দেওয়া এবং বিএনপি জামায়াতের দালালী ছেড়ে আওয়ামী লীগ সংগঠনকে শক্তিশালী করার কাজে মনসংযোগ দিতে, আমি ছোট হিসেবে পরামর্শ দিই।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কার্য ভাংচুরের প্রতিবাদে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল সংগঠনের বিক্ষোভ মিছিল সহ নানান কর্মসূচির অংশ হিসাবে বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুল আলম চৌধুরী রাজুর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়, কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে আপনি ঠিক তখন ঐ দুর্নীতিবাজ চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর সহ পরিষদে বিএনপি জামায়াতদের নিয়ে খোঁশ গল্পে মেতে উঠেছিলেন বলে এ লেখাটা ফেসবুকে দিয়ে ছিলাম তিনি এটাই দাবী করেন!

শুচ/আাআফা