স্টাফ রিপোর্টার, সীতাকুণ্ড থেকে:

সীতাকুণ্ডে ৪ সন্তানের জননীকে ধর্ষণের দায়ে পুলিশ তাজুল ইসলাম ভোলা মিয়া (৬০) কে গ্রেপ্তার করেছে। এঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা ও ধর্ষিতা (৪০) সূত্রে জানা যায়, ধর্ষিতা ৪ সন্তানের জননী নুর মোহাম্মদের প্রথম স্ত্রী (৪০) কে বিয়ের ২৫ বছর পর ২য় বিয়ের করে অন্যত্র বসাবস করে আসছিলো। এ সুযোগে সীতাকুণ্ড বারৈয়াঢালা ইউনিয়নের ফেদাইনগর এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে তাজুল ইসলাম ভোলা মিয়া (৬০) মোবাইলে অন্য পরিচয়ে তার সাথে প্রেমে সর্ম্পক গড়ে তুলে। এর মধ্যে গত ৩০ নভেম্বর বিকেল চারটার সময় ভোলা তার বাড়িতে আসতে বললে তার কথামতে বাড়িতে যায়।

একপর্যায়ে সে তার অন্য আরেকটা বাড়ীতে নিয়ে ৮ দিন ধরে আটকে রেখে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বুধবার সকাল ৭টায় সময় কোন রকমে ধর্ষণকারীর বাড়িতে পালিয়ে সীতাকুণ্ড থানায় গিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ ধর্ষণ ভোলাকে গ্রেপ্তার করে ।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি তদন্ত সুমন বণিক জানান, এ ঘটনায় ধর্ষিতা চার সন্তানের জননী একটি ধর্ষণ মামলা করেছে এবং ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে কোর্টে প্রেরণ করা করেছে।

শুচ/আআফা