আব্দুল্লাহ আল-ফারুক, সীতাকুণ্ড থেকে :

বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সাঃ সম্পাদক ভাটিয়ারী বিজয় স্বরণী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আবু জাফর সিদ্দিকীকে জfমায়াত বানিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে। 

গত ২২ অক্টোবর কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকে স্বার্থন্বেষী একটি মহল এই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয় বলে জানা গেছে। অথচ দায়িত্ব গ্রহণ করেই তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবরসহ, যাদের পরিশ্রমে কলেজটি প্রতিষ্টা হয়েছে তাদেরকে শ্রদ্বাচিত্তে স্মরণ করেন।

এছাড়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল, সংসদ দিদারুল আলমসহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি জানান, আমি দায়িত্ব নিয়েছি একমাস হয়নি। অথচ একটি পক্ষ আমাকে জামাত তকমা লাগানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।

তিনি বলেন, আমার বাবা মরহুম আবুল বশর কানুনগো, বঙ্গবন্ধুর সময়ে পটিয়া কুসুমপুরা ইউনিয়নের সিঃ সহসভাপতি ছিলেন। আমার মামা মরহুম এস এম ইউসুপ বঙ্গবন্ধুর সময়ে কেন্দ্রিয় আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন। আমার সমন্ধি মেঃ জেঃ মরহুম মিয়া মোং জয়নাল আবেদিন ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রতিরক্ষা সচিব। আমি মেহেরআটি গ্রামের গাউচিয়া কমিটির খানকা শরিফের সভাপতি এবং বতর্মান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাস্থ্য সেবা কমিউনিটি ক্লিনিক ৯৬ সাল থেকে নিজের জমিতে প্রতিষ্টা করে অদ্যবধি সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

শুচ/ইখ/আআফা