স্টাফ রিপোর্টার :
কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের ২০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান করে নিয়েছে চট্টগ্রামের ছয় নেতা। এদের চারজনের বাড়ি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায়। দুই জনের বাড়ি উত্তর জেলায়। তবে এতে ঠাঁই মেলেনি চট্টগ্রাম মহানগরীর কোন নেতার।

স্থান পাওয়া ৬ নেতার মধ্যে তিনজন যুবলীগের গত কেন্দ্রীয় কমিটিতেও ছিলেন। ছয় নেতা হলেন- যুগ্ম স¤পাদক পদে বদিউল আলম বদি, তার বাড়ি পটিয়ায়। সাংগঠনিক স¤পাদক পদে আবু মনির মো. শহীদুল হক রাসেল, তার বাড়ি আনোয়ারায়।

তথ্য ও গবেষণা স¤পাদক মীর মো. মহিউদ্দিন ও সহ স¤পাদক নাছির উদ্দিন মিন্টু। তাদের বাড়ি সাতকানিয়ায়। উপ প্রচার ও প্রকাশনা স¤পাদক পদে আদিত্য নন্দী, তার বাড়ি হাটহাজারী উপজেল্য়া। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য নিয়াজ মোর্শেদ এলিট, তার বাড়ি মীরসরাইয়ে। নতুন কমিটিতে তিনি নির্বাহী সদস্য পদে স্থান পেয়েছেন।

দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, নতুন কমিটিতে চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের কেউ স্থান পায়নি। তবে চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু নগর যুবলীগের একটি তালিকা কেন্দ্রে জমা দিয়েছিলেন। সেখান থেকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে কারো স্থান হয়নি।

অন্যদিকে নতুন কমিটিতে জায়গা পেয়েছেন কয়েকজন সংসদ সদস্য, সাবেক ছাত্রলীগ ও বিভিন্ন জেলা থেকে ওঠে এসেছে নতুন মুখ, সিসি কমিটির সদস্য ও সাবেক কমিটির বেশ কয়েকজন। কমিটিতে জায়গা পেয়েছেন কয়েকজন সাংবাদিকও। নতুন কমিটিতে বাদ পড়েছেন যুবলীগের গত কমিটির বিতর্কিত নেতারা। পাশাপাশি বয়স ৫৫ বছরের বেশি হওয়ায় বাদ পড়েছেন ৭০ জনেরও বেশি।

দলীয় তথ্যমতে, ২০১৯ সালের ২৩ নভেম্বর যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ স¤পাদক ঘোষণা করা হয়। যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেসে সংগঠনটির সভাপতি পদে আসেন শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ স¤পাদক পদে আসেন মাঈনুল হোসেন খান নিখিল।

শুচ/ইখ