স্টাফ রিপোর্টার, ফটিকছড়ি থেকে :

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুরের নারায়নহাট ইউনিয়নের চাঁদপুর এলাকায় নির্জন ঘরের ভিতরে কথিত প্রেমিকাকে নিয়ে এসে প্রেমিকসহ তার বন্ধু মিলে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে । শনিবার (৭ নভেম্বর) উপজেলার ভুজপুরে চাঁদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের সময় হাতেনাতে আটক হওয়া কথিত প্রেমিক দাঁতমারা ইউপির পশ্চিম তারাখোঁ এলাকার জনৈক মাহাবুল আলম সিএনজি মাহাবুর ছেলে নাজিম (২২) ও ঘটনার ধামাচাপা দিতে যাওয়া পশ্চিম হাসনাবাদ এলাকার জনৈক বজল আহমদের ছেলে আবু মুনসুরকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় একাধিক লোকজন জানায়, গত ৬ নভেম্বর রাতে কয়েকজন উঠতি বয়সী ছেলে মিলে একটা মেয়েকে নির্জন কুড়ে ঘরের দিকে নিয়ে যেতে দেখে তাদের চলাফেরা সন্দেহজনক মনে হলে স্থানীয়রা কয়েকজন ওই ঘরে গিয়ে দেখি কয়েকজন ছেলে মিলে একটা মহিলাকে জোর করে মহিলার মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করছে। চিৎকার শুনে ওখানে কি হচ্ছে জানতে চাইলে কথিত বখাটেরা ওখান থেকে দৌড়ে পালাতে থাকে। ঘটনাস্থল থেকে নাজিম নামের একজন আটক এবং ওই আঠারো বছর বয়সী এক নারীকে উদ্ধার করি।

পরে ওই মহিলার কাছে বিস্তারিত জানতে চাইলে সে জানায়, নাজিম নামের ছেলেটার সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। সেই সুবাধে বাড়ি থেকে পালিয়ে এসে বিয়ে করার কথা থাকলেও সে তা না করে সে কয়েকজন ছেলেকে তার বন্ধু বলে নিয়ে এসে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এব্যাপারে ভুজপুর থানাকে জানাতে চাইলে উপস্থিত আবু মুনসুর নামে জনৈক ব্যাক্তি তার বাড়িতে বসে মিমাংসা করার কথা বলে তাদের উভয়কে তার জিম্মায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ভুজপুর থানা ওসি শেখ আব্দুল্লাহ জানান, ধর্ষণের অভিযোগে আমরা ৫ জনকে আটক করেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে যারা ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুচ/ইখ/আম