স্টাফ রিপোর্টার :
বাঁশখালীর চাম্বল এলাকার ফোরকানিয়া মাদ্রাসায় প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে ৮টা পর্যন্ত চলত পাঠদান। এরপর ছুটি দিলেও মসজিদ পরিষ্কারের নামে পছন্দমতো কোনো এক শিক্ষার্থীকে রেখে দিতেন মাদ্রাসার শিক্ষক মোজাম্মেল হক (৫৫)। এমন কৌশলে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ধর্ষণ করতেন তিনি।

গত এক মাসে এভাবে চার বার ওই শিক্ষকের ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১১ বছরের এক শিশুকন্যা। এ ঘটনায় ভিকটিম শিশুকন্যার মা বাদী হয়ে গত ১৯ অক্টোবর বাঁশখালী থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় রোববার (১ নভেম্বর) শিশু ধর্ষণকারী মোজাম্মেল হককে কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার থেকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

সোমবার দুপুরে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার মাহমুদুল হাসান মামুন এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বাঁশখালীতে ১১ বছরের একটি শিশু একাধিকবার ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে জানতে পারি। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ওই শিক্ষককের বিরুদ্ধে একটি মামলাও করেন।

এ মামলার ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে যে কুমিল্লার দেবিদ্বারে পাওন্নারপুল এলাকায় এক আত্নীয়ের বাসায় আত্নগোপন করে মাদ্রাসা শিক্ষক মোজাম্মেল হক। এ তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালিয়ে রোববার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে বাঁশখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

শুভ চট্টগ্রাম/শিউলি