স্টাফ রিপোর্টার :
চট্টগ্রামে নানার বাসায় বেড়াতে এসে লাশ হলো ৬ বছরের শিশু মেহেরাজ ইসলাম আরিয়ান। বৃহ¯পতিবার দুপুরে নগরীর হালিশহরের শাপলা আবাসিকের পাশে নির্মাণাধীন একটি ভবনে জমে থাকা পানিতে ভেসে উঠে শিশু মেহেরাজ ইসলাম আরিয়ানের লাশ।

আরিয়ান রাজধানী ঢাকার নাখাল পাড়া নিবাসী সাইফুল ইসলাম জুয়েলের ছেলে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের হালিশহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় সিনহা।

তিনি বলেন, ২৭ অক্টোবর সন্ধ্যা ছয়টায় ঘর থেকে বের হয়ে আরিয়ান আর ঘরে ফেরেনি। নিখোঁজের প্রায় ৩৬ ঘন্টা পর বৃহ¯পতিবার দুপুরে স্থানীয়দের দেওয়া সংবাদের ভিত্তিতে আমরা টিম পাঠিয়ে শিশু আরিয়ানের লাশ উদ্ধার করি।

তিনি আরো বলেন, ২৭ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬ টায় নিখোঁজ হয়েছে উল্লেখ করে ওই রাতেই তার মা মারজান আক্তার পাহাড়তলী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরিতে উল্লেখ করা জামা কাপড়ের সাথে আরিয়ানের লাশের জামা কাপড় মিল থাকায় সহজেই আমরা লাশটির পরিচয় শনাক্ত করতে পেরেছি।

লাশটি যেই প্লটে পাওয়া গেছে সেই প্লটে ভবন নির্মাণের জন্য পাইলিংয়ের কাজ হয়েছে। ফলে বৃষ্টিতে কিছু পানি জমে ফেনাও জন্ম নিয়েছে। তবে আরিয়ানের মৃত্যু কোন আঘাতে হয়েছে নাকি পানিতে ডুবে মারা গেছে সেটা তদন্তের পরে বলা যাবে।

সঞ্জয় সিনহা বলেন, পুলিশের অপরাধ তদন্ত সংস্থা সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আলামত সংগ্রহ করেছে। আরিয়ানের নানার বাড়ি মূলত কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে। শাপলা আবাসিক তার নানার বাসা। তার আড়াই মাসের একটি ছোট বোন রয়েছে।

শুভ চট্টগ্রাম/ইখ