নিজস্ব প্রতিবেদক : ২০১৪ সালের পর থেকে প্রায় প্রতি নির্বাচনে ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগ তুলেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। করেন ভোটাধিকার হরণের অভিযোগ।

অনেকটা সেরকমই ভোট কারচুপি ও ভোট কেন্দ্র দখল ঠেকানোর কথা বললেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

শনিবার (১৪ মার্চ) রাতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীর প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে আয়োজিত এক মতিবিনিময় সভায় এমন কথা বলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ।

তিনি বলেন, দলীয় মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিমকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করে প্রধান প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে চাই। এ জন্য আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে ভোটারদেরকে কেন্দ্রে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করতে হবে। একই সাথে ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখল ঠেকাতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে কাজ করতে হবে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও সরকারের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হলে আগামী ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিমকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করতে হবে। এ জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনদের সাথে নিয়ে পাড়া-মহল্লাসহ প্রত্যোকের ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাইতে হবে।

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নির্বাচন পরিচালনা পরিষদ ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদের সভাপতিত্বে ও সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সদস্য সরওয়ার আলম চৌধুরী মনির সঞ্চালনায় মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম.এ সালাম, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাসেম প্রমুখ।