আব্দুল্লাহ আল-ফারুক, সীতাকুণ্ড:

ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুন্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড দক্ষিণ বাজারে ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন রহিম উদ্দিন নামে ভাতঘরের এক দোকানদার। শুক্রবার রাত ৯টার সময় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় লোকজন মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। চাঁদা তুলে তার চিকিৎসা চালাচ্ছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, সীতাকুন্ডের রঙ্গিপাড়া গ্রামের কসাই বাড়ির ইউনুস মিয়ার ছেলে রহিম উদ্দিন(৪৩)েএর ভাতঘরে ৫/৬ জনের একটি ডাকাত দল ডাকাতির টাকা ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে তাদের নিজেদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু করে। এ সময় রহিম উদ্দিন ডাকাতদের তার দোকান থেকে চলে যাওয়ার জন্য বলে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ডাকাত মুন্না (২০) শাহাদাত (২২) ও ডাকাত সাজ্জাদ রহিম উদ্দিনকে দোকান থেকে বাহির করে পেটাতে থাকে একপর্যায়ে পেটে ছুরি দিয়ে আঘাত করে নাড়িভুড়ি বের কের দেয়। পরে স্থানীয়রা ধাওয়া করে ডাকাত মুন্নাকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। রহিম উদ্দিনকে উদ্ধার করে প্রথমে সীতাকুন্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে হাসপাতলে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক ।

সীতাকুণ্ড থানার এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় আহত রহিম উদ্দিনের স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। গ্রেপ্তাকৃত মুন্নাকে কোটে প্রেরণ করা হবে। মামলার ধরণ সম্পর্কে জানতে চাইলে এসআই সাইফুল বলেন বিষয়টি ওসি স্যার জানে। এদিকে ওসির মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের মহিলা মেম্বার পারুল জানান, ডাকাতির টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে ডাকাতদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হচ্ছিল রহিম উদ্দিন এর দোকানের সামনে। রহিম উদ্দিন ডাকাতদেরকে তার দোকানের সামনে থেকে চলে যাওয়ার জন্য বললেই। ডাকাতেরা তাকে দোকান থেকে বাইরে নিয়ে পিটাতে থাকে এবং একপর্যায়ে ছুরি রহিমের পেটের ভিতর ঢুকিয়ে নাড়িভুড়ি বের করে দেয়।

শুভ চট্টগ্রাম/ ইখ