আব্দুল্লাহ আল ফারুক, সীতাকুণ্ড :

সীতাকুণ্ডে ১৫ বছরের এক কাজের মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টার দায়ে মোরশেদুল আলম (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দিনগত রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান সীতাকুন্ড মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক। 

তিনি জানান, মোরশেদুল আলম এলাকার জাহিদুল আলমের পুত্র। সে মঙ্গলবার দিনগত ১০টার সময় ওই কাজের মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় কাজের মেয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রমতে, ১০নং জঙ্গল সলিমপুর (ছিন্নমূল) মনতাজের ঘোনা ১নং ওয়ার্ডর জাফরাবাদ এলাকার মহিমা বেগম (৪০) নামের এক মহিলা বেশি বেতনের লোভ দেখিয়ে অন্যের বাসা থেকে তার বাসায় নিয়ে আসে কাজের মেয়েটিকে। বাসায় নিয়ে আসার পর মোরশেদুল আলমকে ফোন করে বাসায় আনেন। এই সময় কাজের মেয়েটিকে বলেন তোকে এর সাথে বিবাহ দেব। এই লোকটি আমেরিকা প্রবাসী, তুকে ও আমেরিকা নিয়ে যাবে। তুই ভালভাবে সংসার করতে পারবি।

কিন্তু কাজের মেয়েটি বলে আমি তাকে বিবাহ করব না, সেই বয়স্ক লোক। এ কথা বলার সাথে সাথে কাজের মেয়েটিকে মারধর শুরু করে মাহিমা বেগম, একপর্যায়ে মেয়েটিকে ঘরে রেখে সে বাইরে চলে যায়। এ সুযোগে মোরশেদুল আলম মেয়েটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে।

পরে মেয়েটির চিৎকারে শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এ সময় ধর্ষনের চেষ্টাকারী মোরশেদুল আলম পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে লোকজন তাকে ধরে থানা সোপর্দ করে। ধর্ষণের চেষ্টাকারি মোরশেদুল আলমকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ওসি (তদন্ত)।