আব্দুল্লাহ আল-ফারুক, সীতাকুন্ড:

যৌতুকের দাবীতে মারধরের শিকার হয়েছেন সীতাকুণ্ড মডেল থানায় কর্মরত নারী পুলিশ। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় শনিবার সকালে স্বামী হানিফকে (২৮) গ্রেপ্তার করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ পুলিশ। সীতাকুণ্ড মডেল থানার এস.আই রাশেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গত পাঁচ বছরে পূর্বে রাউজান থানায় কর্মরত থাকা অবস্থায় পেকুয়া থানার রাজখালী ইউনিয়নের শফিউল আলমের ছেলে হানিফ মোবাইলে বিভিন্ন সময় নারী পুলিশ মিনুয়ারাকে ডিস্টার্ব করতো এবং প্রেমের প্রস্তাব দিতো। পরে প্রেমের প্রস্তাব মেনে নিয়ে প্রেম করতে শুরু করে দুজনেই। হানিফ এ সময় ব্যবসা করার কথা বলে ফাঁদে ফেলে মিনুয়ারার কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা নেয়।

কিন্তু বিয়ের পর সে যৌতুক হিসেবে মিনুয়ারার কাছে আরো ১০ লাখ টাকা দাবি করলে তাকে আবারো ৪ লাখ টাকা দেয়া হয়। এরপর বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে আরো ৬ লাখ টাকার জন্য বিভিন্ন সময় স্ত্রীকে মারধর করে আসছিল। সর্বশেষ গত শুক্রবার সকালে স্ত্রী মিনুয়ারাকে সীতাকুণ্ড পৌরসভার সোবহানবাগ এলাকায় বহুতল ভবনের ৬ তলায় স্ত্রীর নেওয়া ভাড়া বাসায় তাকে মারধর করতে থাকে।

এরপর স্ত্রী নারী পুলিশ সীতাকুণ্ড মডেল থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুক আইন একটি মামলা দায়ের করেন। ফলে শনিবার সকালে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেন।