নিজস্ব প্রতিবেদক :

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এনজিও’র ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে রূপনা শর্মা (৩৮) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে তার নিজ ঘরে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। নিহত রূপনা উপজেলার উত্তর মেখল মোজাফফরপুর এলাকার রশিক ডাক্তার বাড়ির বাসিন্দা ও নাপিত অরুন কুমার শর্মার স্ত্রী।

নিহত রূপনার স্বামী অরুন কুমার শর্মা বলেন, আগে নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করলেও করোনা মহামারির কারণে নিয়মিত কাজ না থাকায় সঠিক সময়ে কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন। পরে সরকারিভাবে ঋণের কিস্তি সংগ্রহে বিধি-নিষেধ আসায় রূপনা শর্মা আর কোনো কিস্তি দিতে পারেননি।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে রূপনা শর্মাকে প্রতিদিন কিস্তি দিতে হতো। প্রায় ৮ লাখ টাকা কিস্তি ও ঋণ থাকায় মানসিকচাপে সে আত্মহত্যা করে।

নিহতের বড় মেয়ে জবা শর্মা কেঁদে কেঁদে বলেন, আমার মা অতিরিক্ত ঋণের টাকা শোধ করতে না পারার কারণে গলায় ফাঁস দেন। রাতে আমরা একসঙ্গে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। আমার মা ছোট ভাইকে নিয়ে অন্য রুমে ঘুমায়। বাবা প্রতিদিনের মত নিচে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি মায়ের দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পড়ে আছে।