নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী সানাই মাহবুবকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। এর আগে গত ৫ আগস্ট করোনা শনাক্ত হওয়ার পর চট্টগ্রামের বেসরকারি একটি হাসপাতালে ভর্তি হন সানাই।

সানাই মাহবুবের বড় ভাবি শাহিনা আফরোজ মিষ্টি জানান, সকালে সানাইয়ের খুব শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। তারপর তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। এখন শ্বাসকষ্ট কিছুটা কমেছে। সানাইয়ের নাকে পলিপাসের সমস্যা আছে। আর এজন্য এমনটা হচ্ছে। তাছাড়া আপাতত অন্য কোনো জটিলতা নেই।

শাহিনা আফরোজ মিষ্টি বলেন, ১৫ দিন আগে সানাই মাহবুবের শরীরে করোনার লক্ষণ দেখা যায়। সন্দেহ থেকে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করান। ৫ আগস্ট রিপোর্টে জানতে পারে তার করোনা পজিটিভ। শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় ওইদিনই চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাকে।

সবার কাছে দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, ছোটবেলা থেকে সানাইকে আমি বড় করেছি। আপনারা সবাই ওর জন্য দোয়া করবেন। ও যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে।

নবাগত নায়িকা সানাই দেশের বাড়ি রংপুর। থাকেন ঢাকার গুলশানে। তবে কেন কি সূত্রে চট্টগ্রামে এসেছেন সেটা জানতে চাইলে তেমন কিছুই জানাননি শাহিনা আফরোজ মিষ্টি।

উল্লেখ্য, ব্রেস্ট সার্জারি করে আলোচনায় আসেন সানাই। পরে ফেসবুকে অশ্লীল ছবি দিয়ে ব্যাপক সমালোচিত হওয়ার পাশাপাশি ভাইরাল হন তিনি। সানাই ওই সময়ে জানিয়েছিলেন, নিজেকে অন্যরকম লুকে আকর্ষণীয় করতে থাইল্যান্ড থেকে ব্রেস্ট সার্জারী করিয়েছি। আধুনিকতা নয়, নিজের সৌন্দর্যরুপ বৃদ্ধি করতে মূলত এটি করা। আমি নিজেও চাই যেভাবেই হোক নিজেকে ভাইরাল করি। আমার টোটাল প্রায় ৩৫ লাখ মতো খরচ হয়েছে। তবে এই ধরনের সার্জারী খুবই এক্সপেনসিভ।’

মডেলিংয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেন সানাই মাহবুব। বেশ কয়েকটি গানের মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন তিনি। দুটি চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে ময়নার ইতিকথা, দেওয়ান নাজমুলের শালবনের মহুয়া চলচ্চিত্রের শুটিং শেষ করেছেন। সম্প্রতি মালায়ালাম ভাষার একটি সিনেমার কাজ শেষ করেছেন এই অভিনেত্রী।