নিজস্ব প্রতিবেদক:
২০ টাকা দিয়ে ৯ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করেছে ৫৫ বছরের দিদারুল আলম। ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রাম মহানগরীর চাঁন্দগাও থানাধীন মধ্যম মোহরার জমিদার বাড়ির বুড়ির পুকুর পাড় এলাকায়।

ঘটনায় মামলা দায়েরের পর শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে দিদারুল আলমকে গ্রেপ্তার করে চান্দগাঁও থানা পুলিশ। রবিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয় বলে জানান চান্দগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান খান।

তিনি জানান, ধর্ষক দিদারুল আলম মধ্যম মোহরার হামিদ জমিদার বাড়ি বুড়ির পুকুরপাড় এলাকার মৃত শাহ আলমের ছেলে। ২৫ জুলাই শনিবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বুড়ির পুকুর পাড় এলএলখান স্কুলের পিছন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে ২৪ জুলাই শুক্রবার ২০ টাকার একটি নোট দিয়ে রুমে নিয়ে গিয়ে পাশের ভাড়াটিয়ার ৯ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণ করে দিদারুল আলম। ২৫ জুলাই ধর্ষণের শিকার শিশুর পরিবার দিদারুল আলমের বিরুদ্ধে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। মামলাটি আমলে নিয়ে ধর্ষক দিদারুল আলমকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হয়।

আদালতের নিদের্শে ধর্ষক দিদারুল আলমকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি আতাউর রহমান খান।