নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। কিন্তু সেখানে চিকিৎসা না পেয়ে নিয়ে যান একটি বেসরকারি ক্লিনিকে। আর সেখানে শয্যা থেকে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পেয়ে অজ্ঞান অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন ডা. আরিফুর রহমান নামে এক চিকিৎসক।

শুক্রবার (১২ জুন) রাত ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে জানান চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির। তিনি জানান, ডা. আরিফুর রহমান ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস স¤পন্ন করেন। তার বাসা নগরীর আবেদন কলোনী এলাকায়। তিনি নগরীর একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি কর্মরত ছিলেন।

চমেক সূত্র জানায়, ডা. আরিফুর রহমানকে শুক্রবার বিকেলে চমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ইয়েলো জোনে ভর্তি করা হয়। ভর্তির কিছুক্ষণ পরই চমেক হাসপাতাল থেকে ওই চিকিৎসককে পার্শ্ববর্তী একটি ক্লিনিকে নিয়ে যান স্বজনরা। ক্লিনিকে থাকা অবস্থায় শয্যা থেকে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান তিনি। এতে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। অজ্ঞান অবস্থায় ওই চিকিৎসককে ফের চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

চমেক হাসপাতালের করোনা মোকাবেলায় সমন্বয় কমিটির আহবায়ক ও মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. আব্দুর সাত্তার বলেন, অজ্ঞান ব্যক্তিকে অ্যাম্বুলেন্সে নেয়ার সময় অক্সিজেন সাপোর্ট দিতে হয়, যা এ চিকিৎসককে দেয়া হয়নি। হাসপাতালে আনার পর আইসিইউ সাপোর্ট দেয়ার আগেই ওই চিকিৎসক মারা যান।