নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনার শঙ্কায় চট্টগ্রাম ছেড়েছেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর ওমেন এর ১১০ জন আফগান শিক্ষার্থী। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিশেষ ফ্লাইটে বাংলাদেশ ত্যাগ করেন এই শিক্ষার্থীরা।

বাংলাদেশে অবস্থানরত আফগানিস্তানের দূতাবাস থেকে সরাসরি তদারকির মাধ্যমে তাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কর্যক্রম পরিচালনা করা হয় বলে জানান শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার সরওয়ার ই জাহান।

তিনি বলেন, রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থানরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের ইতোমধ্যে ফেরত নিয়েছে বিভিন্ন দেশ। শিক্ষার্থী ছাড়াও বাংলাদেশে কর্মরত রয়েছেন-এমন অনেক দেশের নাগরিক তাদের নিজস্ব সরকারি ব্যবস্থাপনায় নিজ নিজ দেশে ফিরে গেছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকালে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিশেষ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম ত্যাগ করেন চট্টগ্রামের আন্তর্জাতিক মানস¤পন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর ওমেন এর এই ১১০ জন শিক্ষার্থী।

বাংলাদেশে আফগান দূতাবাসের সহকারী ওয়াইস রেজা এ প্রসঙ্গে বলেন, বন্দরনগরী চট্টগ্রামে করোনার সংক্রমণ দিন দিন বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুও। এ অবস্থায় আমরা আমাদের দেশের নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিতে বদ্ধপরিকর। আমাদের দেশের স¤পদ কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের বিপদগ্রস্ত করতে পারি না। তাই এমন উদ্যোগ নিয়েছে আফগান সরকার।

তিনি জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই আবার তাদের ফিরিয়ে আনা হবে। তবে এখন শিক্ষার্থীরা তাদের অবশিষ্ট কিছু পাঠ্যক্রম অনলাইনে স¤পন্ন করবেন। মাঝপথে শিক্ষার্থীদের ফিরে যাওয়ার সকল ব্যয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও দেশের সরকার যৌথভাবে বহন করছে বলে তিনি জানান।