নিজস্ব প্রতিবেদক:
সরকারের বিরুদ্ধে জনগণকে ক্ষ্যাপাতে করোনা পরিস্থিতির এই সময়ে চট্টগ্রামে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় অনিয়ম করা হচ্ছে। চিকিৎসা সেবা না নিয়ে চিকিৎসকের একটি মহল পরিকল্পিতভাবে এই কাজে লিপ্ত রয়েছে।

রোববার চট্টগ্রাম মহানগরীর আগ্রাবাদে মা ও শিশু হাসপাতালের সামনে এক মানববন্ধনে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন এই অভিযোগ করেন।

মা ও শিশু হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসায় বিশেষায়িত হাসপাতাল ঘোষণার দাবিতে নাগরিক উদ্যোগের ব্যানারে এই মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। খোরশেদ আলম সুজন এই সংগঠনের উপদেষ্টা।

সুজন বলেন, চট্টগ্রামে করোনার চিকিৎসায় নানা অসঙ্গতি, অব্যবস্থাপনা লেগে আছে। চিকিৎসা না পেয়ে মানুষের মধ্যে হাহাকার চলছে। হাসপাতালগুলোতে শুধু নেই আর নেই। বেসরকারি হাসপাতালগুলো শুধু প্রস্তুতির গল্প শুনাচ্ছে, দুয়ার খুলছে না। বিনা চিকিৎসায় প্রতিদিন মানুষ মরছে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের মা ও শিশু হাসপাতাল ৪০০ মানুষের সেবা দিতে সক্ষম। পর্যাপ্ত আইসিইউ সুবিধাও আছে। প্রয়োজন শুধু হাসপাতালটিকে করোনা চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করা। কিন্তু সেটা তারা পাচ্ছে না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চাইছে, অথচ তাদের সেই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না।

সুজন আরও বলেন, চিকিৎসা সেবা নিয়ে যারা বারবার মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করছে তাদের চক্রান্তে মা ও শিশু হাসপাতালকে করোনার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হচ্ছে না। এই চক্র পরিকল্পিতভাবে মানুষকে চিকিৎসা বঞ্চিত করে সরকারের বিরুদ্ধে জনগণকে ক্ষ্যাপিয়ে তুলছে। তিনি অবিলম্বে চট্টগ্রামের মা ও শিশু হাসপাতালকে করোনার বিশেষায়িত হাসপাতালের ঘোষণা দেওয়ার দাবি জানান।

নাগরিক উদ্যোগের সদস্য সচিব হাজী মোহাম্মদ হোসেন, সংগঠক আব্দুর রহমান মিয়া, মোরশেদ আলম, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের আজীবন সদস্য ফোরামের সদস্য সচিব লায়ন মাহমুদুর রহমান শাওন, আজীবন সদস্য জাহিদ তানছির, এম এ জলিল মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন।