বিশেষ প্রতিনিধি :

টানা ৬৭ দিনের অস্বাভাবিকতা শেষে রোববার (৩১ মে) থেকে স্বরুপে ফিরছে বাংলাদেশ। এদিন থেকে সড়কে নামবে গণপরিবহণ। চলবে ট্রেন। আকাশে উড়বে উড়োজাহাজ। পূর্ণোদ্যমে শুরু হবে ব্যাংকিং ও শেয়ার বাজার। যদিও করোনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকে।

গত মার্চের মাঝামাঝি সময়ের করোনা পরিস্থিতির সংক্রমণ ঠেকাতে গণপরিবহণ, ট্রেন চলাচল, বিমান চলাচল, শেয়ার বাজার বন্ধ ও ব্যাংকিং লেনদেন সীমিত করা হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় শিক্ষা প্রতিষ্টানসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তর ও আদালত। হয়ে যায় পুরোদেশ লকডাউন। কিন্তু তাতে মেলেনি কোন সুফল।

বিশেষ করে পোশাক কারখানা ও ব্যবসা প্রতিষ্টান খোলার বিষয়ে শীতলতা আনার পর করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে সারাদেশে। আর এরমধ্যেই রোববার থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি দপ্তর ব্যতিত বাকী সবকিছু খোলে দেওয়ার ইঙ্গিত আসে সরকারের পক্ষ থেকে।

এ নিয়ে ইতোমধ্যে দারুণ উৎসাহ দেখা দিয়েছে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে। বিশেষ করে ভাড়া পুনর্বিন্যাস’ করে ৩১ মে থেকে নতুন ভাবে বাস চালাতে চান মালিকরা। বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও শ্যামলী পরিবহনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাকেশ ঘোষে এ প্রসঙ্গে শুভ চট্টগ্রামকে বলেন, যেহেতু স্বাস্থ্যবিধি মেনে টার্মিনাল থেকে যাত্রী উঠানো ও কাউন্টার খোলা রাখা হবে। সেহেতু ভাড়ার হারও পুনর্বিন্যাস’ করতে হবে। তবে ভাড়া কি রকম হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিভাবে টার্মিনাল থেকে যাত্রী ওঠানামা করা হবে সেসব বিষয়ে আলোচনা করতে শুক্রবার সকাল ১১টায় বৈঠক করা হচ্ছে।

তিনি জানান, গাবতলী থেকে দেশের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলে গাড়ি-বাস মালিকদের সংগঠন, বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, সায়েদাবাদ, মহাখালী, ফুলবাড়িয়াসহ কয়েকটি টার্মিনালের দূরপাল্লার রুটের বাস মালিকদের সংগঠন ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতিও একই রকম সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে চলতে গেলে নতুন করে ভাড়া ধার্য করার বিষয়েই বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন তারা।

রোববার থেকে স্বাভাবিক ব্যাংকিং : রোববার থেকে দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থাও পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হচ্ছে। লেনদনে চলবে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। তবে করোনা ভাইরাসের মাঝারি ও উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত। ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি, কর্মকর্তা, সন্তানসম্ভবা গ্রাহক ও কর্মকর্তা ব্যাংকে যাওয়া যাবে না। কর্মকর্তাদের নিজ দায়িত্বে সীমিত যানবাহনে যাতায়াত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ঢাকার মতিঝিল ও দিলকুশা এবং চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ ও আগ্রাবাদ এলাকায় সব ব্যাংকের সব শাখা প্রতি কর্মদিবসে খোলা থাকবে। শ্রমঘন শিল্প এলাকায় সব ব্যাংক শাখা খোলা থাকবে আগের নিয়মে। সমুদ্র, স্থল ও বিমানবন্দর (পোর্ট ও কাস্টমস) এলাকায় ব্যাংকের শাখা ও বুথ স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে সপ্তাহের সাতদিন ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখতে হবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ব্যাংকের শাখা প্রতি কর্মদিবসে খোলা রাখতে হবে। শ্রমঘন শিল্প এলাকায় সব ব্যাংক শাখা খোলা রাখতে হবে। সমুদ্র, স্থল ও বিমানবন্দর (পোর্ট ও কাস্টমস) এলাকায় ব্যাংকের শাখা ও বুথ স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে সপ্তাহের সাতদিন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

গ্রাহকের প্রয়োজনে নগদ-চেকের মাধ্যমে জমা-উত্তোলন, ডিডি, পে-অর্ডার ইস্যু, শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ, ট্রেজারি চালান গ্রহণ, সরকারের সামাজিক কার্যক্রমের আওতায় ভাতা-অনুদান বিতরণ, বৈদেশিক রেমিটেন্সের অর্থ পরিশোধ, প্রণোদনাগুচ্ছের কার্যক্রম, যাবতীয় নিয়মাচার মেনে ঋণ মঞ্জুর ও বিতরণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম, গ্যাস, বিদ্যুৎ বিল গ্রহণ, পেমেন্ট সিস্টেমের আওতাধীন অন্য লেনদেন সুবিধা দিতে হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে এনআরবি বন্ড, বিভিন্ন প্রকার সঞ্চয়পত্রের লেনদেন নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার পাশাপাশি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেও বলা হয়েছে।

চালু হচ্ছে শেয়ারবাজার : রোববার থেকে দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু করতে অনুমতি দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বৃহস্পতিবার বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ৭২৬তম কমিশন সভায় এ অনুমতি দেয়া হয়।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার এই অনুমতির ফলে আগামী ৩১শে মে থেকে লেনদেন চালুর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)। তবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত না নেয়া পর্যন্ত লেনদেন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত চলবে।

বিএসইসির কমিশন সভার বিষয়ে নির্বাহী পরিচালক মো. আনোয়ারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ এর বিস্তাররোধে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় প্রণীত সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অফিস আদেশ পরিপালন সাপেক্ষে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই ও সিএসই) লেনদেন ও সেটেলমেন্টসহ এ সংক্রান্ত সকল কর্মকাণ্ড পুনরায় শুরু করার জন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের পক্ষ থেকে অনাপত্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে চলবে ট্রেন: রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে ট্রেন চলাচল করবে। আগামী ৩১শে মে থেকে ১৫ই জুন পর্যন্ত ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রির মাধ্যমে শুধুমাত্র আন্তঃনগর ট্রেন চালুর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী । তিনি বলেন, সীমিত পরিসরে ট্রেন চালানো হবে। সেক্ষেত্রে একটি সিট বাদ দিয়ে টিকিট বিক্রি করা হবে। একটি ট্রেনের ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হবে। এদিকে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে চলমান সাধারণ ছুটি আগামী ৩০শে মে শেষ হচ্ছে। ৩১শে মে থেকে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালু হবে।

চালু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট : আগামী ১লা জুন থেকে দেশের অভ্যন্তরীণ রুটে (ডমেস্টিক) ফ্লাইট চালু হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এ তথ্য জানিয়েছে।

বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আপাতত সীমিত পরিসরে ডমেস্টিক ফ্লাইট চলাচল ১লা জুন থেকে শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে শুধু ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিমানবন্দরে অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট চলবে। সৈয়দপুর বিমানবন্দরেও ফ্লাইট চলাচল চালুর চিন্তাভাবনা চলছে।

এদিকে অভ্যন্তরীণ অন্যান্য রুট যশোর, রাজশাহী, বরিশাল ও কক্সবাজার বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচলের বিষয়ে বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, এক সপ্তাহ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্তগুলো নেয়া হবে। এছাড়া সপ্তাহখানেকের মধ্যে যদি এই চারটি বিমানবন্দর স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী ও ফ্লাইটের প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধাগুলো নিশ্চিত করতে পারে তাহলে সেসব বন্দরগুলোকেও ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দেয়া হবে।