শুভ বিশ্ব ডেস্ক : দিল্লীর মারকাজ নিজামুদ্দিন মসজিদে তাবলীগ জামাতের সমাবেশ থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় মামলা হয়েছে ভারতের তাবলিগ জামাতের নেতা মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে। মামলা দায়েরর পর থেকেই আলোচিত এই ধর্মীয় নেতা নিখোঁজ রয়েছেন।

দিল্লীর পুলিশ জানিয়েছে, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে জমায়েতের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর অভিযোগে মাওলানা সাদকে গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে এর আগে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল সাদকে। এরপর গত ২৮ মার্চ থেকেই তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

পুলিশ জানায়, সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে দিল্লীর নিজামুদ্দিন মার্কাজে তাবলিগ জামাতের বড় জমায়েত হয়েছিল ১৩ মার্চ থেকে ১৫ মার্চ পর্যন্ত। এই জমায়েত ভিঁড়ে ঠাসা ছিল। সেখানে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মায়ানমার সহ একাধিক দেশের প্রতিনিধিরা এসেছিলেন। সেখান থেকেই করোনা সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করে।

এই সভাতে যোগ দেওয়ার পরেই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১০ জন। এই ঘটনায় দায়ের করা মামলার এফআইআরে মাওলানা সাদ ছাড়াও ড. জিশান, মুফতি শেহজাদ, এম সাইফি, ইউনুস, মোহাম্মদ সালমান, মোহাম্মদ আশরাফ রয়েছেন। এরই মধ্যে মসজিদটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিপুল সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।