নিজস্ব প্রতিবেদক :
চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে অবস্থিত বিশেষায়িত হাসপাতাল বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি) আইসোলেশন ইউনিটে মঙ্গলবার রাতে আরফা বেগম (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু ঘটে। তবে এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে আরো দুই নারীকে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

এই দুই নারীই চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার বাসিন্দা এবং একই পরিবারের সদস্য। এদের একজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছে। অন্যজন পর্যবেক্ষণে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিআইটিআইডির পরিচালক ডা. এম এ হাসান চৌধুরী।

তিনি জানান, জ্বর, সর্দি কাশি নিয়ে দুই নারী বিআইটিআইডিতে আসেন। তাদের কথা বলার পর জানা যায় কয়েকদিন আগে সৌদি আরব থেকে ওই পরিবারের দুই প্রবাসী ভাই বাড়িতে এসেছেন। ফলে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে দুই নারীকে আইসোলেশনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা থেকে ১৬ বছরের এক তরুণী বিআইটিআইডিতে আসেন। জ্বর ও সর্দি ছিল তার। এ ধরনের উপসর্গ দেখে বিআইটিআইডি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয় ওই তরুণীকে। পরে তার নমুনা নিয়ে পরীক্ষা করানো হয়।

একই দিন বিকেলের দিকে ওই তরুণীর এক আত্নীয় একই উপসর্গ নিয়ে সীতাকুন্ডের ওই হাসপাতালে যান। ৩৫ বছর বয়সী ওই মহিলাকেও চিকিৎসকরা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করান। তবে এখনো পর্যন্ত অবশ্য তার কাছ থেকে কোনো নমুনা নেওয়া হয়নি।

আইসোলেশনে থাকা তরুণীরা চিকিৎসকদের জানান, কয়েকদিন আগে সৌদি আরব থেকে তাদের দুই প্রবাসী ভাই বাড়িতে আসেন। এদের মধ্যে জ্বর-সর্দির কোনো উপসর্গ দেখা নেই। কিন্তু কয়েকদিন ধরে তারা অসুস্থ বোধ করছিলেন। বর্তমানে তারা জ্বর ও সর্দিতেও আক্রান্ত।