নিজস্ব প্রতিবেদক : ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। করোনা বিষয়ক সরকারের মুখপাত্র। প্রতিদিন টেলিভিশনে আসেন। নতুন নতুন তথ্য ও হরেক রকমের পরামর্শ দেন। কিন্তু যারা মারা যান তাদের সম্পর্কে বলতে গিয়ে আপত্তিকর ও অসম্মানজনক শব্দ ব্যবহার করেন তিনি।

বলেন, যিনি মারা গেছেন তিনি বয়স্ক। ৬০ এর উপর বয়স। এর অর্থ কি? ৬০ এর উপরে মারা গেলে অসুবিধা নেই? তিনি বিনা চিকিৎসায় মারা গেলেও আপত্তি করার কিছু নেই? ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা কি জানেন, ৬০ এর উপরে মানুষের সংখ্যা কত? যারা রাষ্ট্র পরিচালনা করেন তাদের সবার বয়স ৬০ এর উর্ধ্বে।

এমনিতে ফ্লোরা প্রতিদিন মানুষকে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে ভুল তথ্য দেন। করোনা উপসর্গ নিয়ে অনেকেই মারা যান। যাদের আইইডিসিআরের স্বীকৃতি নেই। ফলে তার দপ্তর থেকে তথাকথিত হটলাইনে ভুল তথ্যও দেয়া হয়। পরীক্ষা ছাড়াই সেব্রিনা নিজেই নাকি বলেন, যা শুনলাম তাতে মনে হয়, আপনার করোনা হয়নি।

প্রতিদিন এ ধরনের অসংখ্য অভিযোগ আসছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে। যার একটি প্রতিবেদন বৃহস্পতিবারে প্রকাশ করা হয়েছে ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক মানবজমিনের অনলাইনে।

অনলাইনের ওই প্রতিবেদক বিস্ময় প্রকাশ করে রিখেছেন-দুনিয়ার শক্তিমান প্রেসিডেন্ট-প্রধানমন্ত্রীরা প্রায় প্রতিদিন জাতিকে করোনার খবরা খবর জানাচ্ছেন, সাহস দিচ্ছেন। সেখানে একজন যুগ্ম সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তার ওপর এই দায়িত্ব ছাড়ার মধ্যে কি আনন্দ আছে তা বলা সত্যিই কঠিন।